খাগড়াছড়ি, , সোমবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৮

লামায় শত্রুতার বলি ১২ হাজার গাছ!

প্রকাশ: ২০১৬-১২-১৫ ১৫:৫৩:৩২ || আপডেট: ২০১৬-১২-১৫ ১৫:৫৩:৩২

%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a6%e0%a6%b0%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%a8বান্দরবান সংবাদদাতা: বান্দরবানের লামা উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে সামশুল আলম নামে এক কৃষকের বাগানের ১২ হাজার বনজ গাছ কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ সময় ওই কৃষকের বসতঘরটিও ভেঙে দেয় তারা।

বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার সরই ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি ধুংচা পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।  এ ঘটনায় তিনজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৪০-৫০ জনের বিরুদ্ধে স্থানীয় আর্মি ক্যাম্পে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী কৃষক।

অভিযুক্তরা হলেন- চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া উপজেলার পুটিবিলা ইউনিয়নের বাসিন্দা ফজল করিমের ছেলে আক্তাররুজ্জামান বাবুল ও আবদুর রব এবং ধুংচা পাড়ার বাসিন্দা ফজল করিমের ছেলে নুরুল আবচার।

অভিযোগে জানা যায়, সরই ইউনিয়নের বাসিন্দা আহমদ কবিরের ছেলে সামশুল আলমের নামে ৪০৭নং জি হোল্ডিং মূলে পাঁচ একর দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণির জমি রয়েছে।

ওই জমিতে বিভিন্ন প্রজাতির গাছের বাগান করে বসতঘর নির্মাণ করে ভোগ দখল করে আসছেন তিনি।

সম্প্রতি একই এলাকার নুরুল আবচার গংরা এ জমি তাদের বলে দাবি করে দখলে নিতে বিভিন্নভাবে চেষ্টা চালায়। বৃহস্পতিবার ভোর ৩টার দিকে নুরুল আবচার ও তার দুই ভাইয়ের নেতৃত্বে ৪০-৫০ জন সংঘবদ্ধ হয়ে সামশুল আলমের বাড়িতে হামলা চালায়।

এ সময় তারা কৃষক পরিবারের সদস্যদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বাগানের প্রায় ১২ হাজার গাছ কেটে দেয়।

এদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে অভিযুক্ত নুরুল আবচার ওই জমি তাদের বলে দাবি করেন। এবিষয়ে সরই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফরিদ উল আলম বলেন, খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষককে আইনের আশ্রয় নিতে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

লামা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, গাছ কাটার ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

আরকাইভস

April 2018
M T W T F S S
« Mar    
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় ১ম পাতা

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন

error: Content is protected !!