খাগড়াছড়ি, , সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১

গুইমারায় শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ; শিক্ষক পলাতক

প্রকাশ: ২০২১-০৭-২১ ০০:২৩:৫৩ || আপডেট: ২০২১-০৭-২১ ০০:২৪:০০

গুইমারা প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ির গুইমারায় সহকারী শিক্ষক মো.ফয়েজ আহমেদ (৩৪) কর্তৃক ওই বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রীকে (১৬) ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে।

অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক মো.ফয়েজ আহমেদ গুইমারা সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের গনিত বিষয়ের শিক্ষক এবং চাপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাট উপজেলার রাজানগর এলাকার ফরিদ আহমেদের ছেলে। গুইমারা মাস্টার পাড়া এলাকায় নন্দন বনিকের বাড়িতে ভাড়া থাকেন।

অভিযোগকারী জানান, গতকাল সোমবার গুইমারায় ‘‘আমার বাড়ি আমার খামা” উদ্বোধন করা হয়।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গুইমারা সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের পক্ষে সহকারী শিক্ষক মো.ফয়েজ আহমেদ বিদ্যালয়ের কিছু ছাত্রীদের মোবাইল ফোনে সংগীত পরিবেশনের প্রস্তুতির বিষয়ে রিয়া এক্সেলের জন্য সোমবার সকাল ১১টায় বিদ্যালয়ে আসতে বলে। সকাল ১১টা থেকে ১২.৩০পর্যন্ত মো. ফয়েজ তার বাড়িতে রিয়া এক্সেল করান অভিযোগকারী সহ অপর ছাত্রীদের।

রিয়া এক্সেলের পরে দুপুর ২টায় উদ্বোধন অনুষ্ঠানের পূর্বে অভিযোগকারী ওই শিক্ষকের বাড়িতে গেলে শিক্ষক তাকে প্রথমে চায়না মুভি দেখায়। পরে জড়িয়ে ধরে ধর্ষনের চেষ্টা করলে ভুক্তভোগি চিৎকার করে। এসময় এলাকার লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে।

অপরদিকে অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক মো.ফয়েজ আহমেদ জানান, দুপুরে মেয়েটি তার বাসায় যায়। তিনি মেয়েটির হাত ধরে জোরে টান দেন ভাত খাওয়ার জন্য।

‘‘আমার বাড়ি আমার খামারের” উপজেলা সমন্ময়কারী শান্তানু মহাজন জানান, ব্যাংকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশনের জন্য বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের রিয়া এক্সেলের বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। এ ঘটনায় বিভন্ন ছাত্র সংগঠন দ্রুততম সময়ে অপরাধীকে আটকপূর্বক শাস্ত্রির দাবি জানিয়েছে।

এবিষয়ে গুইমারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে সহকারী শিক্ষক মো. ফয়েজ আহমেদের নামে ভুক্তভোগি বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছে। ফয়েজ আহমেদ মামলার পর থেকে পলাতক রয়েছে। পুলিশের তদন্ত চলমান রয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!