খাগড়াছড়ি, , শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২

৩০ বছরের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করায় ইউনিয়ন পরিষদে অভিযোগ

প্রকাশ: ২০২২-১১-২৩ ১৩:৪৪:১২ || আপডেট: ২০২২-১১-২৩ ১৩:৪৪:১৩

আবদুর রশিদ, নাইক্ষ্যংছড়িঃ বান্দরবানের নাইক্ষংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড লম্বাবিল গ্রামে দীর্ঘ ৩০ বছরের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে মোঃ জাগের বাদী হয়ে বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আলম কোম্পানি বরাবর ৫ জনের নাম উল্লেখ করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযুক্তরা হলেন একই ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড লম্বাবিল গ্রামের বাসিন্দা আবুল ছৈয়দ পিতা আমিন উদ্দিন, মোঃ জাহিদ, তাহেরা বেগম উভয় পিতা আবুল ছৈয়দ ,নুর জাহান স্বামী আবুল ছৈয়দ, খুকি স্বামী শাহাবুদ্দীন।

লিখিত অভিযোগে জানাযায় বাদী মোঃ জাগের ইউনিয়নের লম্বাবিল গ্রামের বাসিন্দা। বিবাদীরা তার পার্শ্ববর্তী হলেও সব সময় ঝগড়ায় লিপ্ত থাকে। গত ১৮ নভেম্বর সকাল আটটার সময় আবুল ছৈয়দের নেতৃত্বে অভিযুক্তরা বসত বাড়ীতে যাওয়ার দীর্ঘ ৩০ বছরের চলাচলের পথটি বাশের বেড়া দিয়ে বন্দ করে দেয়। এতে বাঁধা দিতে গিয়ে আবুল ছৈয়দের লাইসেন্স করা বন্দুক দিয়ে গুলি করার হুমকি সহ অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে। এছাড়া ঘেরা দিতে বাধা দিলে বিভন্ন মামলায় জড়াবে বলে হুমকি প্রদান করে তারা। এতে নিরুপায় হয়ে প্রতিকার চেয়ে পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানান ভুক্তভোগী জাগের ।

সরজমিনে এই প্রতিবেদক ঘটনাস্থলে গিয়ে আশ পাশের লোকজনের সাথে কথা বলে জানাযায়, দীর্ঘ বছর ধরে জাগের এই পথ দিয়ে তিনি ও তার পরিবারের লোকজন চলাচল করে আসছে। হঠাৎ এই ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দারা ও হতবাক হয়। স্থানীয় বাসিন্দারা ও ভুক্তভোগী জাগের জানান আবুল ছৈয়দের নিজ নামে লাইসেন্স কৃত বন্দুক আছে। প্রায় সময় বন্দুক দিয়ে গুলি করার হুমকি দেয়।

তাছাড়া এই চলাচলের পথ নিয়ে বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের এ এস আই ইয়ামিন মিয়া ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কালাম মিমাংসা করে দিতে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছেন বলে জানান। এ এস আই ইয়ামিন জানান বিষয়টি যেহেতু জায়গা সংক্রান্ত আমি বিজ্ঞ আদালতের শরণাপন্ন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত নুর জাহান বলেন আমি নিজেই চলাচলের পথ বন্ধ করে দিয়েছি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.