খাগড়াছড়ি, , বুধবার, ১৬ জুন ২০২১

করোনাকালিন বন্ধে স্কুল শিক্ষকের ছাদ বাগান, বাড়ছে দর্শনার্থীর ভিড়

প্রকাশ: ২০২১-০৫-১৫ ১৩:১৯:৪৯ || আপডেট: ২০২১-০৫-১৫ ১৩:১৯:৫৬

ওমর ফারুক সুমন- রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় করোনা মহামারির কারণে সরকারি বন্ধের সুযোগ কাজে লাগিয়ে নিজের বাড়ির ছাদে গড়ে তুলেছেন দৃষ্টি নন্দন বাগান তা দেখতে নিয়মিত বাড়ছে নানা বয়সী দর্শনার্থীর ভিড়, উপজেলার কাচালং মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম নিজের বাড়ির ছাদের ৪ শতক যায়গায় সখের বসে গড়ে তুলেছেন বিভিন্ন প্রজাতির দেশী বিদেশি ফলজ ও ফুলের বাগান এই বাগানে রয়েছে আম, লিচু, মালটা, লেবু, আপেল, ড্রাগন, আঙ্গুর, স্টোবেরী, আমড়া, ছবেদা, পেয়ারা, ডালিম, সহ বিশ প্রজাতির ছোট বড় অর্ধশতাধিক ফুল ও ফলের গাছ যার অধিকাংশটিতেই ফল ও ফুল ধরেছে তা দেখতে আশপাশের এলাকা থেকে প্রতিনিয়ত নানা বয়সী দর্শনার্থী ভিড় করছেন।

উপজেলা কৃষি সম্পসারন অধিদপ্তর বলছে এটিই উপজেলার প্রথম পরিপূর্ণ ছাদ বাগান, সমতল অঞ্চলের মত পাহাড়েও ছাদ বাগানে আগ্রহী করতে সরকারি ভাবে উদ্যোগ গ্রহন করা গেলে স্থানীয়দের উদ্বুদ্ধ করা যাবে।

কৃষি সম্পসারন অধিদপ্তরের উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা তোফায়েল আহম্মেদ বলেন শহরে বাড়ির ছাদে বাগান করলে ৩০% গৃহকর মওকুফ করা হয় পাহাড়ের পৌরসভার মেয়র গণ এই পদক্ষেপ নিলে স্থানীয়দের মাঝে ছাদ বাগানে আগ্রহ বাড়বে। ফলে আবাদি জমির উপড় চাপ কমবে। বাগান মালিক স্কুল শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম বলেন করোনা মহামারির কারণে দীর্ঘদিন  স্কুল   বন্ধের ফলে    সরকারি নির্দেশনা রয়েছে বাড়ির বাহিরে না যাওয়া স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার তাই প্রতিষ্ঠান বন্ধের এই সময়টা আমি কাজে লাগিয়ে উপজেলা কৃষি সম্পসারন অধিদপ্তরের পরামর্শে বাড়ির ছাদে সখের বাগান গড়ে তুলেছেন এতে বাচ্চাদের খাবার চাহিদা পুরনের পাশাপাশি প্রয়জনীয় অক্সিজেন ও পাচ্ছেন আর বাগান পরিচর্চা করে তার সময়ও কাটছে ভালো। 

বাগান দেখতে আসা দর্শনার্থীদের অনেকেই উদ্বুদ্ধ হয়ে নিজের বাড়ির ছাদে বাগানে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। স্কুল শিক্ষকের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.