খাগড়াছড়ি, , বুধবার, ২৩ মে ২০১৮

দীঘিনালায় পাল্টপাল্টি অগ্নিসংযোগ; হুমকি ও আতঙ্কে বাড়ি ছেড়ে অন্যত্রে ৪০ পরিবার

প্রকাশ: ২০১৮-০৪-২০ ১৪:৩৮:২৮ || আপডেট: ২০১৮-০৪-২০ ১৪:৫৯:১৩

জীবন চৌধুরী উজ্জ্বল, দীঘিনালা:  দীঘিনালা উপজেলায় প্রসীত বিকাশ সমর্থিত ইউপিডিএফ এবং এমএন লারমা সমর্থিত জেএসএস নেতার বাড়িতে পাল্টাপাল্টি অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। গত বুধবার রাতে ইউপিডিএফ নেতা প্রজিত চাকমার বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে পুড়িয়ে দেয়ার পর বৃহস্পতিবার বিকালে এমএন লারমা সমর্থিত জেএসএস এর সহযোগী সংগঠন যুব সমিতির নেতা রনেল চাকমা বাড়ি অগ্নিসংযোগ করা হয়। অগ্নিসংযোগে প্রজিত চাকমার বাড়ি পুরোপুরি ভষ্মিভূত হয়ে গেলেও রনেল চাকমার বাড়ির আংশিক পুড়ে যায়। অন্যদিকে প্রসীত বিকাশ সমর্থিত ইউপিডিএফ এবং এমএন লারমা সমর্থিত জেএসএস এর অব্যহত হুমকি-ধামকির কারণে উপজেলার ৪০ পরিবার গৃহহীন হয়ে পড়েছে। আতঙ্কিত গৃহহীন এসব পরিবার গোপনে আত্বিয়স্বজনের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানাযায়. গত ১৪ এপ্রিল শনিবার থেকে উপজেলার দীঘিনালা এবং বাবুছড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে তাদের বিপক্ষ লোকজনকে বাড়ি ছেড়ে যাওয়ার জন্য অব্যহত হুমকি প্রদান করে, প্রসীত বিকাশ খীসা সমর্থিত ইউপিডিএফ এবং এমএন লারমা সমর্থিত জেএসএস। অব্যহত হুমকি-ধামকির ফলে স্থানীয় লোকজনের মাঝে আত্ঙ্ক ছড়িয়ে। এসময় আতঙ্কিত পরিবার নিরাপদে আত্বিয়স্বজনের বাড়ি আশ্রয় নেয়। এঘটনায় প্রসীত বিকাশ সমর্থিত ইউপিডিএফ এর ২৮ পরিবার এবং এমএন লারমা সমর্থিত জেএসএস ১২ পরিবার নিজ বাড়ি-ঘর ছেড়ে অন্যত্রে আশ্রয় নিয়েছে।
অন্যদিকে গত বুধবার সাড়ে নয়টায় উপজেলা রাঙ্গিপাড়া এলাকায় মহাল্ছড়ি ইউপিডিএফ সংগঠক প্রজিত চাকমার বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করার পর বৃহস্পতিবার বিকেলে এমএন লারমা-জেএসএস এর সহযোগী সংগঠন যুব সমিতির সদস্য রনেল চাকমার বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে প্রতিপক্ষ। এঘটনায় প্রসীত বিকাশ সমর্থিত ইউপিডিএফ এবং এমএন লারমা সমর্থিত জেএসএস একে অপরকে দায়ী করে। অগ্নিসংযোগের ঘটনায় প্রসীত বিকাশ সমর্থিত ইউপিডিএফ নেতা প্রজিত চাকমার বাড়ি পুরোপুরি ভষ্মিভূত হয়ে গেলেও এমএন লারমা সমর্থিত জেএসএস’র রনেল চাকমার বাড়ির কিছু অংশ পুড়ে যায়।
সরেজমিনে গত শুক্রবার উপজেলার রাঙ্গিপাড়া বড়াদম এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে জানাযায়, অব্যহত পাল্টাপাল্টি অগ্নিসংযোগ এবং হুমকি-ধামকির কারণে সাধারণ লোকজনের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এলাকাপ্রায় পুরুষ শুণ্য হয়েছে পড়েছে অনেক গ্রাম। অপরিচিত কারো সাথে কথা বলতে চাচ্ছে না কেহ।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নারী জানান, গত বুধবার রাতে একটি স্বসস্ত্র একটি পক্ষ প্রথমে ফাকা গুলি করে তারপর বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে। ঘটনা শুনে আমরা বাড়ি থেকে বের হইনি। পরের দিন অন্য পক্ষ আরেকটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে।

এব্যাপারে খাগড়াছড়ি জেলা ইউপিডিএফ এর সংগঠক মাইকেল চাকমা জানান, তথাকথিত সেকশন কমান্ডার বিধান চাকমার নেতৃত্বে প্রজিত চাকমার বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়।তারা নিজেরা নিজেদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে অন্যদের দোষারোপ করছেন। তিনি আরো জানান, তাদের হুমকি-ধামকির কারণে আমাদের ২৮ পরিবার বাড়ি ঘর ছেড়ে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়েছে।
এব্যাপারে এমএন লারমা সমর্থিত জেএসএস এর সহযোগী সংগঠন উপজেলা যুব সমিতির সভাপতি সমির চাকমা অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, তারা (ইউপিডিএফ) বর্তমানে দুভাগে বিভক্ত। তাদের অভ্যন্তরিণ কারণেই এসব ঘটনা ঘটার পর আমাদের উপর দোষ চাপাচ্ছে। অন্যদিকে গত বৃহস্পতিবার প্রসীত বিকাশ সমর্থিত ইউপিডিএফ এর কয়েক বন্দুকধারী রনেল চাকমার বাড়ি অগ্নিসংযোগ করে। তিনি আরো জানান, তাদের অব্যহত হুমকি দিয়ে আমার বাবা-মা’সহ ১২ পরিবারকে এলাকা ছেড়ে যেতে বলেছে। তারা বর্তমানে নিরাপদ্ েআত্বীয়স্বজনের বাড়ি আশ্রয় নিয়েছে।

এব্যাপারে দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)মো. সামসুদ্দিন ভুইয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এখন পর্যন্ত কেহ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

পূর্বের সংবাদ

May 2018
M T W T F S S
« Apr    
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031  

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় প্রথম পাতা

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন

error: Content is protected !!