খাগড়াছড়ি, , শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৯

ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষদের উপর হামলার প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-০২ ১৮:৫৯:১২ || আপডেট: ২০১৮-০৭-০২ ১৯:০৬:১০

দহেন ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি: ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ ও শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তাদের উপর হামলার প্রতিবাদ এবং হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচার দাবীতে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন করেছে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ ইউনিট।

২ জুলাই ২০১৮ সোমবার খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের প্রশাসনিক ভবন প্রাঙ্গনে বেলা ১১টা থেকে শুরু করে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ঘন্টাব্যাপী মানবন্ধনে অংশ নেন খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ বিভিন্ন বিভাগের  শিক্ষক, কর্মকর্তা কর্মচারীসহ, শত শত বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থীবৃন্দ।

মানববন্ধনে খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর শাহ আহমদ নবী’র  সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, রসায়ন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ জাহেদ হাছান, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মোহাম্মদ জাকির হোসেন, বাংলা বিভাগের প্রভাষক মোঃ আবুল বাশার সৌরভ প্রমুখ।

বক্তারা অবিলম্বে ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ ও শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তাদের উপর হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানান।

এদিকে একই দাবিতে খাগড়াছড়ি সরকারি মহিলা কলেজ’র অধ্যক্ষের সভাপতিত্বে সকালে কলেজের মূল ফটকের সামনে মানব বন্ধন করেছেন শিক্ষকগন।

উল্লেখ্য যে, গত ২৮ জুন ২০১৮খ্রি. বৃহস্পতিবার ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীদের কাছে নিয়ম বহির্ভূতভাবে প্রস্পেক্টাস ও পাঠ পরিকল্পনা বিক্রি করে দিতে রাজি না হওয়ায় কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আব্দুস সবুর খান ও উপাধ্যক্ষ আব্দুল জলিলকে ছাত্রলীগ নেতারা বেড়ধক পিটিয়েছেন। এ সময় অধ্যক্ষের কক্ষের টেবিল, আসবাবপত্র ভাংচুর ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি তছনছ করে কলেজের একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতারা।

এ ব্যাপারে প্রত্যক্ষর্শীরা জানান, ঈশ্বরদী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাকিবুল হাসান রনি, কলেজ শাখার ছাত্রলীগের সভাপতি খন্দকার আরমান, সাধারণ সম্পাদক সাব্বির হাসানসহ প্রায় ৪০ জন নেতাকর্মীরা কলেজের অধ্যক্ষের কক্ষে এসে তার ওপর চড়াও হয়। প্রথমে অকথ্য ভাষায় গালি, পরে আসবাবপত্র ভাঙচুর ও এক পর্যায়ে অধ্যক্ষের কক্ষে থাকা উপাধ্যক্ষ এবং অন্য শিক্ষকদের টেনে হিঁচড়ে ঘর থেকে বের করে দিয়ে অধ্যক্ষকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করেন। এ সময় কয়েকজন শিক্ষক অধ্যক্ষ মহোদয়কে রক্ষা করতে গেলে ছাত্রলীগ নেতারা তাদেরও বেধর মারধর করেন। বিকেলে কলেজে এ ঘটনা ঘটলেও একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম থাকার কারণে ঘটনাটি কাউকে জানাতে চায়নি কলেজ কর্তৃপক্ষ। কিন্তু ছাত্রলীগ নেতারা ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ করে দিলে রাতেই অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুস সবুর খান বাদি হয়ে উল্লেখিত ছাত্রলীগ নেতারা ছাড়াও ১১জনের নাম উল্লেখ করে ৪০ জনের বিরুদ্ধে ঈশ্বরদী থানায় মামলা দায়ের করেন (মামলা নং ৭৯/২৮.০৬.২০১৮)। মামলাটি রেকর্ড হয় রাত ১টার পরে। তবে মামলার লিখিত এজাহার থেকে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবির লাইনটি বাদ দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন শিক্ষক জানান, ছাত্রলীগ নেতাদের বিভিন্ন অস্ত্র ও অশ্যাব্য ভাষায় গালিগালাজ এবং অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষসহ অন্যান্য শিক্ষকদের ওপর এভাবে চড়াও হয়ে মারধর করার ঘটনায় তারা কিংকর্তব্য বিমূঢ় হয়ে পড়েন। এ সময় কলেজের অধ্যক্ষকে প্রায় ১ ঘন্টা তার কক্ষে অবরুদ্ধ করে রাখেন ছাত্রলীগ নেতারা। পরে খবর পেয়ে ঈশ্বরদী থানার ওসিসহ পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করেন।

অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুস সবুর খান বলেন, সরকারি নিয়ম বহির্ভূতভাবে অবৈধ প্রস্পেক্টাস ও পাঠ পরিকল্পনা বিক্রি করে দিতে তারা আমাকে নানাভাবে চাপ দিচ্ছিল। আমি তাদের অন্যায় আবদার রাখতে পারিনি বলে ছাত্রলীগ নেতারা আমাকে উপাধ্যাক্ষ আব্দুল জলিলসহ কয়েকজন শিক্ষককে মারধর করেছে। এ সময় ২ লাখ টাকা ছাঁদা দাবি করার পাশাপাশি রাষ্ট্রীয় সম্পদের ওপরও ক্ষতি করেছে।

এ বিষয়ে পাবনার পুলিশ সুপার মোঃ জিহাদুল কবির-পিপিএম বলেন, যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে। ইতোমধ্যে মামলা গ্রহণ করে হামলাকারী আসামীদের গ্রেফতার করতে ঈশ্বরদী থানার ওসিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনায় ঈশ্বরদীতে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হলেও প্রকাশ্যে ছাত্রলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না। বেশ কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা ও ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, অপরাধীরা ভূমিমন্ত্রীর প্রশয়ে নানা অপকর্ম করে বেড়লেও তাদের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পান না কেউ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

পূর্বের সংবাদ

April 2019
M T W T F S S
« Mar    
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় প্রথম পাতা

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন