খাগড়াছড়ি, , শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৯

আর্জেন্টিনার টিকে থাকার লড়াই

প্রকাশ: ২০১৮-০৬-২১ ২০:৫৬:০৬ || আপডেট: ২০১৮-০৬-২১ ২০:৫৬:০৬

স্পোর্টস রিপোর্টার: আইসল্যান্ডের বিপক্ষে মেসির পেনাল্টি মিসে ভীষণ ঝুঁকিতে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ায় আজ জয় ছাড়া কোনো পথ খোলা নেই দলটির সামনে। আর্জেন্টিনা যদি ড্রও করে, দুই ম্যাচ মিলিয়ে থাকবে ২ পয়েন্ট। সেক্ষেত্রে দুই ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে পরের রাউন্ড অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যাবে ক্রোয়েশিয়ানদের। আর শেষ ম্যাচে আর্জেন্টিনা নাইজেরিয়ার বিপক্ষে জিতলে হবে ৫ পয়েন্ট। তখন হয়তো নির্ভর করতে হবে অন্য দলের খেলার ওপর।
আর্জেন্টিনাকে নিজেদের ভাগ্য নিজেদের হাতে রাখতে পরের ম্যাচ জিততেই হবে। নইলে ২০০২ সালের মতো গ্রুপ পর্ব থেকেই ছিটকে যেতে হবে আর্জেন্টিনাকে। নিজনি নভোদ স্টেডিয়ামে আজ এই বাঁচা-মরার ম্যাচ শুরু বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায়।

গ্রুপের সেরা দল হয়েও প্রথম ম্যাচে হোঁচট খাওয়ায় ক্রোয়েশিয়া ম্যাচ নিয়ে একটু বেশি সতর্ক আর্জেন্টিনা। নিজনির সারাজনিক স্কুল মাঠে ম্যাচের আগে শেষবারের মতো অনুশীলন করে আর্জেন্টিনা। আইসল্যান্ডের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন করেন হোসে সাম্পাওলি। কিন্তু পরিবর্তিত খেলোয়াড় হিসেবেও মাঠে নামার সুযোগ পাননি পাওলো দিবালা। গতকাল ম্যাচকে সামনে রেখে সংবাদ সম্মেলনে দিবালা বলেন, মেসির কোনো পরিবর্তিত খেলোয়াড় নেই এখানে, বার্সেলোনায় নেই, সারা বিশ্বের কোথাওই নেই। তাই আমি মনে করি আমাদের অবশ্যই একসঙ্গেই খেলা উচিত।’ কিন্তু মেসি থাকলে দিবালার যে জায়গা হচ্ছে না একাদশে। এই সমস্যার সমাধানও যেন জানিয়ে দিলেন ২৪ বছর বয়সী এই তারকা। তিনি বলেন, ‘আমাদের আগে দেখতে হবে কিভাবে মেসি এবং আমি একসঙ্গেই খেলতে পারি। আমিও তার পজিশনে খেলেই বড় হয়েছি। কিন্তু এখন অবশ্যই চিন্তা করতে হবে কিভাবে দুইজনই একসঙ্গে খেলতে পারি।’ এদিকে সাম্পাওলিও এই ম্যাচে দিবালাকে খেলানোর ইঙ্গিত দিয়েছেন। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে জিততেই হবে আর্জেন্টিনাকে। পরের ম্যাচে যে বড় পরিবর্তন আসছে, সেটা বোঝা গেল আলবিসেলেস্তাদের ট্রেনিং সেশনেই। পরিবর্তিত দল নিয়েই অনুশীলন করিয়েছেন সাম্পাওলিকে। তার নতুন করে দলে সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার তিনজন। নিকোলাস অটামেন্ডিকে সঙ্গ দেবেন নিকোলাস তাগিলাফিকো এবং গ্যাব্রিয়েল মার্কাদো। প্রথম ম্যাচে মার্কোস রোহোর বাজে পারফরম্যান্সের কারণে তাকে এ দলে রাখা হচ্ছে না। অন্যদিকে গত ম্যাচে খেলা অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া এবং লুকাস বিগলিয়াকেও একাদশের বাইরে রাখছেন সাম্পাওলি। তাদের জায়গায় উইংব্যাক হিসেবে খেলবেন মার্কোস আকুনা এবং এদুয়ার্দো সালভিও। দলে ঢুকতে পারেন ক্রিশ্চিয়ান পাভন। ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডে যথারীতি থাকছেন হাভিয়ের মাসচেরানো। বাকি দল অবশ্য ঠিক থাকছে। দলে পরিবর্তনের বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে ডিফেন্ডার গ্যাব্রিয়েল মার্কাদো বলেন, ‘হ্যাঁ, আমরা বিভিন্ন পদ্ধতিতে কাজ করেছি। উইংয়ে কিংবা মাঝখানে পাঁচজনের একটি লাইন বানিয়েছি আমরা। প্রতিটি ম্যাচেই কিছু না কিছু দরকার হয় এবং তা যদি পাঁচজনের লাইন হয়, তাহলে আমরা এটিই করবো। যদি এটা চারজনের লাইন হয়, তবে তাই করবো। আমাদের আর কিছুদিন বাকি আছে কিভাবে খেলবো তা ঠিক করার জন্য।’
আইসল্যান্ডের বিপক্ষে পেনাল্টি মিস করে সবার সমালোচনায় বিদ্ধ হচ্ছেন আর্জেন্টিনার সেরা খেলোয়াড় লিওনেল মেসি। এ নিয়ে মার্কাদো বলেন, আমরা আইসল্যান্ডের ম্যাচ নিয়ে আর পড়ে থাকতে পারি না। যা চলে গেছে, তার জন্য আমরা দুঃখবোধ করতে পারি না।’ প্রতিপক্ষ নিয়ে ভাবনার চেয়ে মেসিদের নিজেদের নিয়ে কাজ করেছেন।

এদিকে ‘ডি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে নাইজেরিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়ে শুভ সূচনা করেছে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ২৪ নম্বরে থাকা দলটি। গ্রুপে সুবিধাজনক অবস্থানে থাকলেও আর্জেন্টিনাকে হারানোর নানা পরিকল্পনা করেছেন ক্রোয়েশিয়ান কোচ। পুরো দলের ভাবনায় শুধু মেসি। মেসিকে থামানোর জন্য বার্সেলোনায় মেসির সতীর্থ ইভান রাকিটিচে ভরসা খুঁজছেন দলটির কোচ। মেসির সঙ্গে গা লাগিয়ে খেলেন সারা বছর। মাঠে, মাঠের বাইরে মেসির হাঁড়ির খবর রাকিটিচের চেয়ে কে বেশি জানেন ক্রোয়েশিয়ান শিবিরে? তাইতো মেসিকে থামানোর জন্য রাকিটিচকে ব্যবহার করতে চাইছেন ক্রোয়েশিয়ান কোচ জ্লাতকো দালিচ। আজ নিজনি নভোদে ক্রোয়েশিয়ার মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। ডি গ্রুপে এটিই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। তাইতো কোনো প্রকার জড়তা না রেখেই দালিচ বলেন, আগামীকালের ম্যাচে রাকিটিচ আমার সহকারী। মেসিকে থামানোর জন্য আমরা ওর দিকেই তাকিয়ে আছি।

ফুটবলারদের কাছ থেকে পরামর্শ নিতে সমস্যা নেই ক্রোয়াট কোচের। ইগো ভুলে দলের জন্য সবকিছু করতে প্রস্তুত তিনি। বলেন, আমি সব সময় ফুটবলারদের ছোট বড় সব বিষয়ে তথ্য নিতে পছন্দ করি। প্রয়োজনে ওদের পরামর্শ গ্রহণ করি। এরইমধ্যে মেসিকে আটকাতে কোচের সঙ্গে বসেছেন রাকিটিচ। এ বিষয়ে দালিচ বলেন, রাকিটিচের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। ও বলেছে মেসিকে আটকাতে সকল ধরনের তথ্যই ও আমাকে দিবে। যা নিয়ে শেষ অনুশীলনে আমি কাজ করবো। রাকিটিচ ছাড়াও মেসিকে থামানোর তালিকায় আছেন লুকা মদরিচ ও মাতেও কোভাসিচ। এরা দু’জন লা লিগায় খেলেন মেসির শত্রু শিবির রিয়াল মাদ্রিদে। এতো কিছুর পরেও দালিচের মতে মেসিকে থামানোর নির্দিষ্ট কোনো ছক থাকতে পারে না। মেসি এমন একজন খেলোয়াড় ও সকল ছককে ধূলিসাৎ করে দিতে পারে। এরপরও মেসিকে একা করে দেয়াই লক্ষ্য থাকবে এই ক্রোয়াট কোচের।

এ পর্যন্ত চারবার ক্রোয়েশিয়ার মুখোমুখি হয়েছে আর্জেন্টিনা। যারমধ্যে দুই জয়ের বিপরীতে একটিতে হেরেছে আলবিসেলেস্তারা। অপর ম্যাচটি শেষ হয়েছে অমীমাংসিতভাবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

পূর্বের সংবাদ

April 2019
M T W T F S S
« Mar    
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় প্রথম পাতা

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন