খাগড়াছড়ি, , বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

জনগনের প্রতি সরকারি কর্মচারীদের বিনয়ী হতে হবে… জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান

প্রকাশ: ২০২১-০৯-১৪ ২৩:৫৭:২৭ || আপডেট: ২০২১-০৯-১৪ ২৩:৫৭:৩১

মাহফুজ আলমঃ চাকুরির সুবাদে  ২০১০ সালে পার্বত্য এলাকা লক্ষীছড়ি প্রথম কর্মজীবন শুরু। এরপর থেকে পাহাড়ের জনপদ এবং লোকজনের সাথে সান্নিধ্য হয়। পাহাড়ের সকল জনসাধারণ দেশের অন্যতম নাগরিক। সেবামূলক কাজে তাদের সাথে ভালো আচরণ করতে হবে। জনসাধারণের প্রতি সরকারি কর্মচারীদের বিনয়ী হতে হবে।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে বরকল উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বক্তব্যে এসব কথা বলেন রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ  মিজানুর রহমান।

এর আগে বরকল উপজেলার বিভিন্ন জায়গা পরিদর্শন করেন। এরপর তিনি উপজেলা সদরে হতদরিদ্র, অসহায় পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ ও ত্রাণ বিতরণ করেছেন। পরে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে পার্শ্বে একটি জায়গায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাঙামাটি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মামুন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বিধান চাকমা, ভাইস চেয়ারম্যান শ্যাম রতন চাকমা ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুচরিতা চাকমা, বরকল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জসিম উদ্দিন।

এসময় বরকল উপজেলার মৌলিক সমস্যা নিয়ে বক্তব্য রাখেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মংক্যাছিং সাগর, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. সুলতান আহমেদ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা মো. গোলাম রব্বানী, বরকল ইউনিয়নের ১৩ নম্বর নলবুনিয়া মৌজার কার্বারী নন্দ বিকাশ চাকমা প্রমুখ।

এছাড়াও তিনি প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে সকল সেবাদান নিশ্চিত করার কথা বলেন। আর পার্বত্য এলাকায় কর্মজীবনে জনসাধারণের পাশে থেকে সাধ্যমত সেবাদান করবেন বলেও জানান তিনি। আলোচনা সভায় তিনি বক্তাদের প্রস্তাবিত সকল দাবি পূরণ করার চেষ্টা চালিয়ে যাবেন বলে আশ্বস্ত করেন।

বক্তারা জেলা প্রশাসকের আগমনে সকলেই সাধুবাদ জানিয়েছেন। এরপর তারা উপজেলার মৌলিক সমস্যার মধ্যে বিশেষ করে দুর্গম এলাকায় আধুনিক শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নয়ন, যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়ন, উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগে জনবল সংকট, বিদ্যুৎ সেবায় জনসাধারণের দুর্ভোগ, ইন্টারনেট সেবা সংক্রান্ত এসব সমস্যার কথা তুলে ধরে জেলা প্রশাসকের কাছে সুনজরে দেখার দাবি রাখেন।

চেয়ারম্যান বিধান জানান, সরকারি কর্মচারিদের আবাসিক সমস্যা, রাজস্ব আয় বৃদ্ধি কিভাবে করা হয় সে ব্যাপারে সহযোগিতা কামনা করেন। উপজেলার শিক্ষা ও যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের পাশাপাশি অনগ্রসর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো অগ্রসর করার বিষয়ে সুনজরে দেখার জেলা প্রশাসককে অনুরোধ জানান বরকলের নির্বাহী কর্মকর্তা জুয়েল রানা।

সভাশেষে আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্পের আওতায় গবাদিপশু পালনের উপর ৮জন সমিতির সদস্যকে নগদ ২ লাখ টাকা প্রদান করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ  মিজানুর রহমান।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!