খাগড়াছড়ি, , বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

লামায় ৩৫ ফুট উচ্চতা রাজামুনি বুদ্ধমূর্তির শুভ উদ্বোধন করলেন পার্বত্য মন্ত্রী

প্রকাশ: ২০২০-০১-১৭ ২২:২৪:৫৫ || আপডেট: ২০২০-০১-১৭ ২২:২৪:৫৭

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা: বান্দরবানের লামা উপজেলায় ৩৫ ফুট উচ্চতা রাজামুনি বুদ্ধমূর্তির শুভ উদ্বোধন, অভিষেক ও উৎস্বর্গ করলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং (এম.পি)। উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ইয়াংছা এলাকায় জীনামেজু অনাথ আশ্রমে শুক্রবার (১৭ জানুয়ারী) সকাল ৯টায় বুদ্ধমূর্তির উৎস্বর্গ উপলক্ষে বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পার্বত্য মন্ত্রী একই সময় জীনামেজু অনাথ আশ্রমে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে ৩০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নবনির্মিত ছাত্রাবাসের (টয়লেট সহ) উদ্বোধন করেন। বিকেলে ইয়াংছা বাজারে বান্দরবান জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৫শত দুস্থ ও অসহায় জনগণের মাঝে শীতবস্ত্র ও কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে যোগ দেন। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, বান্দবানের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম।

উক্ত অনুষ্ঠান ও কার্যক্রমে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা, বান্দরবানের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম, বান্দরবানের পুলিশ সুপার জেরিন আখতার, আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য কাজল কান্তি দাশ, লামা উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল, লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ জান্নাত রু, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ফাতেমা পারুল, লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা ও ভাইস চেয়ারম্যান মো. জাহেদ উদ্দিন, মিলকি রাণী দাশ।

প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদানকালে মন্ত্রী বলেন, শিক্ষা ছাড়া কোন জাতির বিকাশ হতে পারে না। মা-বাবা হারা এইসব অনাথ শিশুদের আশ্রয় দিয়ে জীনামেজু অনাথ আশ্রম তাদের জীবনে নতুন আশার আলো জ্বালিয়েছে। তিনি আশ্রমটিকে সাহায্য সহযোগিতা করতে সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধিদের অনুরোধ করে বলেন, সবাই মিলে মুঠো মুঠো অনুদান দিলে প্রতিষ্ঠানটি দাঁড়িয়ে যাবে। তিনি আশ্রমের শিশুদের উন্নয়নে নগদ ১ লক্ষ টাকা ও ১০ মেট্রিক টন খাদ্য শস্য অনুদান ঘোষণা করেন। এছাড়া আশ্রমের মাঠটি পাঁকা করা, নবনির্মিত ১ তলা বিশিষ্ট ছাত্রবাাসের দ্বিতল উন্নয়ন, রাজামুনি বুদ্ধমূর্তির বাকী কাজ সম্পন্ন করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। একই সময় পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ ব্যক্তিগত তহবিল থেকে আশ্রমের জন্য প্রতিবছর ৫০ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদানের প্রতিশ্রুতি দেন।

একই দিন পার্বত্য মন্ত্রীর সফর সঙ্গী হন বান্দরবানের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম। তিনি দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের মেরাখোলা এলাকায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অগ্রাধিকার ভিত্তিক প্রকল্প দূর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। এসময় তার সাথে ছিলেন, লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি ও ইউপি চেয়ারম্যান মিন্টু কুমার সেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

পূর্বের সংবাদ

February 2020
M T W T F S S
« Jan    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন