খাগড়াছড়ি, , শনিবার, ৬ মার্চ ২০২১

অগ্নি দগ্ধ শিশু কাহিনী চাকমার চিকিৎসা সহায়তায় পাশে দাঁড়ালেন রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদ

প্রকাশ: ২০২১-০২-২২ ১৭:১০:৩৬ || আপডেট: ২০২১-০২-২২ ১৭:১০:৪৫

ওমর ফারুক সুমন- রাঙ্গামাটির লংগুদো উপজেলার আটারক ছড়া ইউনিয়নের উল্টাছড়ি গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের ৭ বছরের অগ্নি দগ্ধ শিশু কাহিনী চাকমার চিকিৎসা সহায়তায় পাশে দাঁড়িয়েছেন রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশীদ।

২২ ফেব্রুয়ারী সোমবার সকাল ১১ ঘটিকায় অগ্নি দগ্ধ শিশু কাহিনী চাকমার চিকিৎসার জন্য সহায়তা বাবদ ২৫ হাজার টাকার চেক তুলেদেন বাঘাইছড়ি উপজেলার স্থানীয় সংবাদ কর্মী মোঃ ওমর ফারুক সুমন এর হাতে।

এসময় এসময় রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাতেমাতুজ জোহরা ও জেলা   সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক  মোঃ আলমগীর মানিক উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশীদ বলেন, আমি ২১ তারিখ সকালে সাংবাদিক ওমর ফারুক সুমনের ফেইসবুক পোস্টের মাধ্যমে  শিশু কাহিনীর চাকমার অগ্নি দগ্ধের ঘটনাটি জানতে পারি এবং তৎক্ষানিক সুমনের সাথে যোগাযোগ করে সহায়তার বিষয়টি নিশ্চিত করি। আজ শিশুটির চিকিৎসার জন্য ২৫ হাজার টাকার চেক হস্তান্তর করি।

জেলা প্রশাসক অগ্নিদগ্ধ শিশু কাহিনী চাকমার চিকিৎসার ব্যাবস্থা গ্রহন করায় বাঘাইছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান সুদর্সন চাকমা ও ওয়ার্ল্ড বুড্ডিস্ট এসোসিয়েশনকে ধন্যবাদ জানান এবং আগামীদিনেও শিশু কাহিনী চাকমার চিকিৎসায় পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি ব্যাক্ত করেন।

উল্লেখ কাহিনী চাকমা আটারক ছড়া ইউনিয়নের উল্টাছড়ি গ্রামের হতদরিদ্র জুমচাষী লিটন চাকমার মেয়ে সে গত ১৫ দিন পূর্বে শীতনিবারনের চেষ্টায় আগুন পোহাতে গিয়ে অগ্নিদগ্ধ হয়ে স্থানীয় গ্রাম্য হাতুড়ে বৈধের কাছে চিকিৎসা নেয় কিন্তু অপচিকিৎসার শিকার হয়ে অবস্থার অবনতি হলে বাঘাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়। পরে বাঘাইছড়ির সাংবাদিক ওমর ফারুক সুমন কাহিনী চাকমার অসহায়ত্বের কথা তুলে ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি মন্তব্য পোস্ট করলে শিশুটির চিকিৎসা সহায়তায় এগিয়ে আসেন বাঘাইছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান সুদর্সশন চাকমা, ওয়ার্ল্ড বুড্ডিস্ট এসোসিয়েশনসহ স্থানীয় বেশ কয়েকজন সহৃদয়বান ব্যাক্তি। পরে সকলের প্রচেষ্টায় কাহিনী চাকমাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়, সেখানে দুইদিন চিকিৎসায় অবস্থার পরিবর্তন না হওয়ায় চিকিৎসক তাকে ঢাকায় প্রেরণের পরামর্শ দেন বলে নিশ্চিত করেন কাহিনী চাকমার বাবা লিটন চাকমা। এতে মোটা অংকের অর্থের প্রয়োজন দেখা দেয়ায় চিন্তিত হয়ে পরেন হতদরিদ্র জুমচাষী লিটন চাকমা, চেয়েছেন সকলের সহায়তা। 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.