খাগড়াছড়ি, , মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯

রাঙামাটির বরকল ইউপি চেয়ারম্যানের ওপর হামলায় আটক ৬

প্রকাশ: ২০১৭-০২-০২ ১৩:৫৩:১৮ || আপডেট: ২০১৭-০২-০২ ১৩:৫৩:১৮

মোঃ নুরুল আমিন,রাঙামাটি: রাঙামাটি বরকল উপজেলার ভুষণছড়া ইউনিয়নে নারী নির্যাতন নিয়ে সালিশ বৈঠক চলাকালে ভুষণছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল খালেকের ছেলে লিটনের হামলায় ৪নং ভুষণছড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা মামুনুর রশীদ মামুন গুরুতর আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে ভুষণছড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মামুনের অস্থায়ী কার্যালয়ে এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় মামুন মাথায় ও ঘাড়ে প্রচন্ড আঘাত পেয়ে ঘটনাস্থলে অজ্ঞান হয়ে পড়েন। প্রচুর রক্তক্ষরণ হলে স্থানীয়রা তাকে বরকল উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।
এদিকে মামুনের ওপর হামলার অভিযোগে ৬ জনকে আটক করেছে বরকল থানা পুলিশ। আটককৃতরা হলেন ভূষণছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কোষাধ্যক্ষ মো খালেক (৬০) খালেকের শ্যালক মোজাম্মেল (৪৫) খালেকের ৪ ছেলে লিটন (২৫) রিপন (২২) খোকন (২০) ও শিপন (১৮)।
বরকল উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নজরুল ইসলাম ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি দুলাল মেম্বার জানান-  ভূষণছড়া এলাকার বাসিন্দা মোঃ খালেকের বড় ছেলে লিটনের স্ত্রী আসমা বেগম (২০) স্বামী লিটনের বিরুদ্ধে গত বছর ব্লাস্টের মাধ্যমে আদালতে নারী নির্যাতন মামলা করেন। ওই মামলার তদন্ত ভার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে দেয়া হয়। উপজেলা চেয়ারম্যানের তদন্ত  প্রতিবেদনে সন্তুষ্ট না হয়ে খালেক রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য সুবির কুমার চাকমার কাছে সুষ্ঠু বিচারের দাবী জানান। খালেকের দাবীর প্রেক্ষিতে সুবির কুমার চাকমা ভুষণছড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ মামুনকে সমাধানের জন্য দায়িত্ব দেন। বৃহষ্পতিবার সকাল ৮টায় ইউনিয়ন পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ে দু’পক্ষকে সালিশ বৈঠকে ডাকা হয়। সালিশ বৈঠকে খালেকের সাথে মামুনের কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান মামুন খালেককে মারধর করেন। পরে খালেক তার আত্মীয়-স্বজন ও ছেলেদের ডেকে এনে চেয়ারম্যান মামুনের ওপর পাল্টা হামলা চালায়। এতে চেয়ারম্যান মামুন মাথায় ও ঘাড়ে আঘাত পেয়ে ঘটনা স্থলে অজ্ঞান হয়ে পড়েন।
বরকল থানার এস আই রমিজ আহমেদ ঘটনার সত্যটা স্বীকার করে বলেন- ঘটনাস্থল থেকে ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

পূর্বের সংবাদ

March 2019
M T W T F S S
« Feb    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় প্রথম পাতা

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন