খাগড়াছড়ি, , মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০

মহালছড়ির মাইসছড়িতে হাজারেরও অধিক ফলন্ত কলা গাছ কেটে দিয়েছে দূবৃত্তরা, থানায় অভিযোগ দায়ের

প্রকাশ: ২০২০-০৯-২৮ ১৯:২০:৫৪ || আপডেট: ২০২০-০৯-২৮ ১৯:২০:৫৬

মহালছড়ি প্রতিনিধিঃ খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি উপজেলায় মাইসছড়ি বাজার এলাকায় রাতের আধাঁরে কে বা কারা ভুট্ট খান নামক এক কৃষকের ১ একর জমির উপর সৃজনকৃত কলাবাগানের ফলন্ত এক হাজারেরও অধিক কলাগাছ, মূল্যবান সেগুন গাছ ও পেঁপে গাছ সহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে ধবংস করে দিয়েছে।

এ ঘটনার খবর পেয়ে সরেজমিনে তথ্যনুসন্ধানে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের সাথে কথা বললে তিনি সংবাদ কর্মীদের জানান ২৭ সেপ্টেম্বর রবিবার গভীর রাতে একদল দূবৃত্ত রাতের আঁধারে তার ১ একর জমির বাগানের কলাগাছ ও অন্যান্য মূল্যবান গাছ কেটে সাবার করে দিয়েছে। যার আনুমানিক ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ২ লক্ষ টাকা।

এব্যাপারে ৪ ব্যাক্তিকে অভিযুক্ত করে মহালছড়ি থানায় একটি জিডি করেছেন, যার জিডি নম্বর – ১০২৬/২০, তারিখ ২৮/০৯/২০২০ ইং। অভিযুক্ত ব্যাক্তিরা হলেন ১। মংশিপ্রু চৌধুরী ২। বলি মারমা, উভয়ের পিতা চাইলাপ্রু চৌধুরী, ৩। উজ্জল মারমা ৪। সূর্য মারমা, উভয়ের পিতাঃ মংসিপ্রু চৌধুরী। সর্ব সাং- মাইসছড়ি বাজার এলাকা, মহালছড়ি, খাগড়াছড়ি। 

জিডি সংক্রান্ত তথ্য জানার জন্য মহালছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ জাহাংঙ্গীর আলমের সাথে কথা বললে তিনি এই ব্যাপারে আইনি প্রক্রিয়া অব্যাহত রেখেছেন বলে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন। 

ঘটনা পরবর্তী এলাকার শান্তি-শৃংঙ্খলা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কথা বলার জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের ফোন করলে তাদের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তবে স্থানীয় মাইসছড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ গিয়াস উদ্দিন (গিয়াস লিডার) ও মাইসছড়ি বাজারের বাজার চৌধুরী অগ্য মারমা এর সাথে কথা বললে তারা উভয়ে ব্যার্থহীন কন্ঠে বলেন এলাকায় শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য এবং এলাকায় যাহাতে কোনো প্রকার  অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য তারা কঠোর অবস্থান নিয়েছেন এবং এই ধরনের কোনো ঘটনা ঘটতে দেওয়া হবে না বলে তারা বলেন। তবে তারা এই ব্যাপারে প্রকৃত দোষীদের বা অপরাধীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তি প্রদান সহ ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের ন্যায্য ক্ষতি পূরণের ব্যবস্থা করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এই ব্যাপারে মহালছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াংকা দত্ত এর সাথে কথা বললে তিনি বলেন আজ সকালে তিনি বিষয়টি জানতে পেরেছেন এবং শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য তিনি কাজ করতেছেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.