খাগড়াছড়ি, , শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সুস্থ রাখতে প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে ডেলিভারী নিশ্চিত করা প্রয়োজন- সিভিল সার্জন ডা. মোঃ শাহ আলম

প্রকাশ: ২০১৮-১১-১৯ ২১:৩০:০১ || আপডেট: ২০১৮-১১-১৯ ২১:৩০:০১

শাহজাহান কবির সাজু, পানছড়ি: খাগড়াছড়ির সিভিল সার্জন ডা. মোঃ শাহ আলম বলেছেন, সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থাসমূহ স্বাস্থ্য সেবায় যেভাবে এগিয়ে আসছে তা আমাদের সকলকে কাজে লাগাতে হবে। পশ্চাৎপদ পার্বত্য এলাকার স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়নে সরকারী/বেসরকারী সকলে সন্মিলিতভাবে কাজ করলে আগামীতে মাতৃমৃত্যুর হার শূণ্যের কোটায় নিয়ে আসা যাবে। এ জন্য বাড়ীতে ডেলিভারী না করে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ডেলিভারির উপর গুরুত্ব দিতে হবে। প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে শতভাগ ডেলিভারী নিশ্চিত করা গেলে আগামী দিনের ভবিষ্যৎ প্রজন্মও সুস্থ থাকবে।

তিনি বলেছেন, পার্বত্য এলাকার উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা সমূহও বিরাট ভুমিকা পালন করে যাচ্ছে। সকলে সন্মিলিত ভাবে উন্নয়ন কর্মকান্ডের সুফল প্রত্যন্ত এলাকায় পৌছে দিতে হবে। বে-সরকারী এনজিও সংস্থা ইপসা’র উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের ভূয়শী প্রশংসা করে বলেন পানছড়িসহ পার্বত্য এলাকার প্রত্যন্ত এলাকায় ইপসা যেভাবে উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে এতে সকলকে সহযোগীতা করতে হবে। তিনি পানছড়ি উপজেলাকে স্বাস্থ্য সেবায় বাংলাদেশের মডেল হিসেবে তৈরী করতে সকলকে একসাথে কাজ করার আহবান জানান।

সোমবার (১৯ নভেম্বর) স্থায়ীত্বশীল উন্নয়নের জন্য সংগঠন ইয়ং পাওয়ার ইন সোশ্যাল এ্যাকশন, ইপসা-শো প্রকল্পের আওতায় মা, শিশু ও কিশোরী-কিশোরী স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়নে সফল অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ পুরষ্কার বিতরন ও সন্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো তুলে ধরেণ। পরিবার পরিকল্পনা, খাগড়াছড়ির উপ-পরিচালক বিপ্লব বড়ুয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যর মধ্যে বক্তব্য রাখেন পানছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ তোহিদুল ইসলাম, পানছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সনজীব ত্রিপুরা, পানছড়ি উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সোহাগময় চাকমা, লতিবান ইউপি চেয়ারম্যান কিরন ত্রিপুরা, চেঙ্গি ইউপি চেয়ারম্যান কালাচাদঁ চাকমা, উল্টাছড়ি ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সুব্রত চাকমা, পানছড়ি প্রেস ক্লাবের সভাপতি নতুন ধন চাকমা, ইপসা’র প্রকল্প ব্যবস্থাপক মোঃ জসিম উদ্দিন, বিলাস সৌরভ বড়ুয়া, টেকনিক্যাল অফিসার মোঃ হাবিবুর রহমান, ইপসা’র কর্মকর্তা মিহির কান্তি ত্রিপুরা, আব্দুল কাদের, বিউটি চাকমা প্রমূখ।

পরিবার পরিকল্পনা, খাগড়াছড়ির উপ-পরিচালক বিপ্লব বড়ুয়ার বলেছেন, ইপসা’র সাথে আমার যেন আত্নীয় সর্ম্পক। ইপসা পানছড়ি উপজেলাসহ প্রত্যন্ত এলাকায় যে সকল উন্নয়ন কাজ করে যাচ্ছে তা এ এলাকার জন্য স্মরনীয় হয়ে থাকবে। তিনি যে কোন ক্ষেত্রে সবসময় ইপসা’র সাথে থাকবেন বলে আশ্বাস দেন। এ অনুষ্ঠানে পানছড়ি উপজেলায় সফল ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্র ,ব্যবস্থাপনা কমিটি, কমিউনিটি গ্রুপ, পিয়ার এডুকেটর, চেইঞ্চ মেকার সদস্য, পরিবার কল্যান পরিদর্শিকা, নারী ও পুরুষ কমিউনিটি হেলথ ওয়ার্কার, সিএসবিএকে পুরষ্কার ও সন্মাননা প্রদান করা হয়।

এছাড়া উক্ত অনুষ্ঠানে ১০ জন দুস্থ্য প্রসূতি মাকে প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে নিরাপদ প্রসব সেবার খরচ বাবদ আর্থিক সহায়তার চেক প্রদান করা হয়।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

পূর্বের সংবাদ

February 2019
M T W T F S S
« Jan    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728  

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় প্রথম পাতা

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন