ব্রেকিং নিউজ
GET STARTED

বিলাইছড়িতে দুই মারমা তরনীকে ধর্ষণের অভিযোগ সাজানো নাটক -সংবাদ সম্মেলনে পিবিসিপি

রাংগামাটি প্রতিনিধি:  রাঙামাটির বিলাইছড়িতে দুই মারমা তরনীকে ধর্ষণের অভিযোগ সাজানো নাটক বলে দাবী করেছে  পিবিসিপি। আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ রাঙামাটি জেলা শাখার কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করে দলটি। এসময় পাহাড়ে সাম্প্রদায়িক উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে ইয়েন ইয়েনকে অভিযুক্ত করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ রাঙামাটি জেলা শাখা।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে মারমা ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির দুই সহোদর বোনকে যৌন নিপীড়নের ঘটনা সাজানো দাবি করে বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামকে অশান্তময় করে তুলতে একটি মহল এখনও নানাভাবে উস্কানিমূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে। এই মহলটি সম্প্রতি ওই দুই কিশোরীকে ঘিরে কথিত নির্যাতনের ঘটনা সাজিয়ে হঠাৎ করে একটি বিষয়ের অবতারণা করে। আর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত কিছুদিন নানা নাটক ও বির্তক সৃষ্টি করে চলেছেন তথাকথিত চাকমা রানি ইয়েন ইয়েন।

পিবিসিপির অভিযোগ, নানা কারণে বিতর্কিত ইয়েন ইয়েন কোনো অদৃশ্য শক্তির ইন্ধনে পার্বত্য চট্টগ্রামে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে বিলাইছড়ির ইস্যুটি সামনে এনে তারা রাজনীতির নোংরা খেলায় মেতে উঠেছে। ইয়েন ইয়েন পাহাড়ের বাঙালি ও উপজাতিদের মধ্যে আস্থা ও সু সর্ম্পকের জায়গাটি নষ্ট করে পাহাড়কে অশান্ত করার বিশেষ মহলের এজেন্ডা বাস্তবায়নের মাধ্যমে বিশেষ স্বার্থ হাসিল করার উদ্দেশ্যে ওই নাটক সাজিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শুনান পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের রাঙামাটি জেলা শাখার সভাপতি মো: জাহাঙ্গির আলম। এসময় উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য নাগরিক পরিষদের রাঙামাটি জেলা শাখার আহ্বায়ক বেগম নূর জাহান, পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের রাঙামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো: হাবিবুর রহমান হাবিব, সহ-সভাপতি মো: কামাল হোসেন, জেলা ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদিকা নারগিস আক্তার, সহ-ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদিকা জান্নাতুন নাঈম মুন্নি প্রমুখ।

 

ইয়েন ইয়েন কর্তৃক সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির উস্কানিতে পার্বত্যবাসী আতঙ্কিত অভিযোগ করে জাহাঙ্গীর আলম বলেন, চাকমা সার্কেল চিফের পত্নী ইয়েন ইয়েন বৈবাহিক সূত্রে রাঙামাটি আসার পর থেকেই নানা সাম্প্রদায়িক কর্মকাণ্ড এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি উত্তপ্ত করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছেন।দিন দিন তিনি যেভাবে তার অবস্থান ব্যবহার করে পাহাড়ের সাধারণ এবং সহজ সরল নারীদের উস্কে দেওয়ার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন, তাতে আমরা শঙ্কিত এবং বিতৃষ্ণ।

 

তিনি বলেন, দুই কিশোরীর উপর কেউ যদি কোনো নির্যাতন চালিয়ে থাকে তার বিচার হওয়া উচিৎ, এতে কারো দ্বিমত থাকার কথা নয়। কিন্তু বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য রাজনৈতিক রঙ লাগানো বা কেউ সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক পরিস্থিতি সৃষ্টি করলে তাদের বরদাস্ত করা হবে না।

 

পাহাড়ের দুই বির্তকিত নারী নেত্রী হাসপাতালে গিয়ে ওই দুই কিশোরীকে দিয়ে তাদের ইচ্ছেমত স্টেটমেন্ট করিয়ে নেওয়ার জন্য ভিকটিমদের নিজেদের জিম্মায় নেওয়ার অপচেষ্টার চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। নারীর সম্মান নিয়ে রাজনীতি করার এই ঘৃণ্য খেলা পাহাড়ের নারীদের স্বকীয়তা নষ্ট করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

Leave a Reply

error: Content is protected !!