খাগড়াছড়ি, , মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯

বাঘাইছড়িতে বন্যাদূর্গতদের মাঝে উপজেলা প্রসাশনের ত্রাণ সামগ্রি বিতরণ

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১১ ১৯:০৯:৩২ || আপডেট: ২০১৯-০৭-১১ ১৯:০৯:৩৪

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি: প্রবল বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে কাচালং নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার ৮ টি ইউনিয়নের শতাধিক গ্রাম ও ১০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্লাবিত হয়েছে, রাস্তাঘাট তলিয়ে বন্ধ রয়েছে অভ্যন্তরিন সড়ক যোগাযোগ ব্যাবস্থা।

উপজেলা প্রসাশনের পক্ষ থেকে খোলা হয়েছে ২৪ টি আশ্রয় কেন্দ্র,  ইতোমধ্য ২৫০ পরিবার আশ্রয় গ্রহণ করেছে আশ্রয় কেন্দ্রে, পানি বন্দি রয়েছে প্রায় ৩ হাজার মানুষ, জেলা পসাশনের পক্ষ থেকে শুকনো খাবার চাল, ডাল, তৈল, ট বিশুদ্ধ পানি বিতরণ করেছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আহসান হাবীব জিতু, এসময় উপজেলা পরিষদের পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ আবু কাইয়ুম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাগরিকা চাকমা,  পৌর মেয়র জাফর আলী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলী  হোসেন, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক জগৎ দাশ উপস্থিত ছিলেন ।

১১ জুলাই বৃহস্পতিবার সকাল ১১ ঘটিকায় এই ত্রাণ সামগ্রী বিতরন করা হয়।   গবাদিপশু ও বৃদ্ধ এবং শিশুদের নিয়ে বিপাকে পড়েছেন অনেকেই, বৃষ্টিপাত বন্ধ না হলে বন্যা পরিশ্রিতির আরো অবনতিসহ পাহাড় ধসের আশংকা করছে প্রসাশন তাই স্থানীয়দের সচেতন করে উপজেলায় মাইকিং করা হয়েছে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান হাবীব জিতু বলেন আমাদের পর্যাপ্ত ত্রান রয়েছে, ইতোমধ্যে আমরা ২৫০ পরিবার কে ত্রান দিয়েছি পরবর্তীতে লাগলে আরো দিবো, ভারী বৃষ্টিপাত না হলে আমরা আশা করছি দুই তিন দিনের মধ্যে বন্যা পরিবেশ স্বাভাবিক হয়ে যাবে।

বাঘাইছড়ি পৌরসভার কাউন্সিলর  বাহার উদ্দিন সরকার ও মোঃ হোসেন বলেন বাঘাইছড়িতে কোন স্থায়ী বন্যা আশ্রয় নেই, তাই অনেক পানি বন্দি পরিবার আশ্রয় কেন্দে আশ্রয় নিতে পারেনি তারা বাধ্যহয়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টানে আশ্রয় গ্রহন করেছে তাই উভয়েই সরকারকে অনুরোধ জানিয়েছেন অতি দ্রুত্ব বাঘাইছরিতে পর্যাপ্ত আশ্রয় কেন্দ্র স্থাপন করার।

ত্রান বিতরণে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সহযোগীতা করেছে রেডক্রিসেন্ট বাঘাইছড়ি ইউনিট এবং হৃদয়ে বাঘাইছড়ি নামে একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যারা।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

পূর্বের সংবাদ

November 2019
M T W T F S S
« Oct    
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন