এ নিয়ে সর্বসাধারনের মনে নানান প্রশ্ন। কেউ কেউ বলছেন, সংকট রয়েছে ডাক্তারের কিন্তু এসেছে চালক।

এদিকে দীর্ঘ এক যুগের অধিক সময় ধরে এক্সরে মেশিনটি নষ্ট। খাগড়াছড়িস্থ ঠাকুরছড়ায় গ্রীড চালু হলে হাই ভোল্টেজে মেশিনটি চালানো যাবে এমনটি বলেছিল কর্তৃপক্ষ। শেষ পর্যন্ত মেশিনটি ঠিক তো দূরের কথা, এরই মাঝে টেকনোলজিষ্ট (রেডিও) সৌরভ চাকমাকে ডেপুটেশনে খাগড়াছড়িতে বদলী দেয়া হয়েছে। যার ফলে পানছড়িবাসী আদৌ এক্সরে সেবা পাবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করছে।

পানছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান সহকারী মংচাই মারমার কাছে নতুন চালক উসিং মারমার যোগদানের তারিখ জানতে চাইলে তিনি বিরক্তি প্রকাশ করে বলেন, আপনি ঢাকাতে যোগাযোগ করেন আমাদের কাছে কিছু নাই।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা ডা. সনজীব ত্রিপুরা জানান, ঢাকা থেকে আউট সোর্সিং এর মাধ্যমে নতুন চালক এসেছে। সারা দেশে এভাবে দেয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান।