খাগড়াছড়ি, , শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০

নিরাপদ পানি অভাব পুরণে নলকুপ স্থাপন করে দিলেন শ্রমিকলীগ নেতা খোরশেদ আলম সুমন

প্রকাশ: ২০২০-১১-২২ ২০:৩০:৪৬ || আপডেট: ২০২০-১১-২২ ২০:৩০:৪৮

মাটিরাঙ্গা প্রতিনিধিঃ জীবন-জীবিকা নির্বাহে পার্বত্য এলাকার সবচেয়ে বড় সমস্যার নাম হচ্ছে নিরাপদ পানি উৎস। আর সেই নিরাপদ পানির অভাবে এতদিন দুর্ভোগ পোহাচ্ছিলেন মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কামিনী মেম্বার পাড়ার সাধারন মানুষ। রোগ জীবানুর ভয় উপেক্ষা করে অনেক দুরে হেঁটে গিয়ে এতোদিন এই গ্রামের মানুষ ধলীয়া খাল পাড়ের গর্ত বা কুয়া থেকে সংগ্রহকৃত পানি ব্যবহারের মাধ্যমে দৈনন্দিন জীবনে পানির চাহিদা মেটাতেন। নিরাপদ পানির সংস্থান না থাকায় এ পাড়ায় বসবাসরত বিভিন্ন পরিবারের সদস্যরা সর্দি, কাশি সহ নানা প্রকার রোগব্যধি আক্রান্তের শঙ্কা ভুগতেন সবসময়।

গত সপ্তাহে সাবেক কমিশনার আবু মিয়ার ছেলে খোরশেদ আলম সুমনের সাথে কামিনী মেম্বার পাড়ার কার্বারী সহ অন্যান্যদের সাথে স্বাক্ষাত হলে তাদের পাড়ায় নলকুপের অভাবে নিরাপদ পানির ব্যবস্থা নেই বলে জানান তারা। বিষয়টি জানতে খোরশেদ আলম সুমন পিতার সোনালি অতীতের সুনাম অক্ষুন্ন রাখার প্রত্যয়ে কামিনী মেম্বার পাড়ায় মানুষের কষ্ট দুর করতে নিজের টাকা ব্যয় করে একটি নলকুপ স্থাপন করে দেন। রবিবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত মো: খোরশেদ আলম সুমন ০৫জন শ্রমিক সাথে নিয়ে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় নিরবিছিন্ন কাজের মাধ্যমে একদিনেই নলকুপটি স্থাপন করে দেন দল কুমার ত্রিপুরার বাড়ীতে। যেখান থেকে সহজেই নিরাপদ পানি সংগ্রহ করতে পারবেন কামীনি মেম্বার পাড়ার সকল সম্প্রদায়ের মানুষ।

এ দিকে নিরাপদ পানি পান করার জন্য নতুন নলকুপ পেয়ে স্থানীয় এলাকাবাসীরা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তরুন এই সমাজ সেবক খোরশেদ আলম সুমনের প্রতি।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ মাটিরাঙ্গা উপজেলা শাখার প্রস্তাবিত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক কমিশনার আবু মিয়ার বড় ছেলে খোরশেদ আলম সুমন বলেন, কামিনী মেম্বার পাড়ার মানুষ আমার পিতাকে খুব ভালবাসতেন বলেই আমি পিতার আদেশেই এই নলকুপটি স্থাপন করে দিয়েছি। আশা করি এখানকার মানুষের নিরাপদ পানির অভাব কিছুটা হলেও পুরণ হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.