খাগড়াছড়ি, , রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

নাইক্ষ্যংছড়িতে মৌসুমী ফল আমের মুকুলে ছেয়ে গেছে গ্রাম বাংলা

প্রকাশ: ২০২০-০২-১৪ ২১:৫৮:৩৫ || আপডেট: ২০২০-০২-১৪ ২১:৫৮:৪২

আব্দুর রশিদ, নাইক্ষ্যংছড়ি, বান্দরবান: বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নের প্রতিটি বসতবাড়ী সহ বিভিন্ন বাগানে এখন মৌসুমি ফল আমের মুকুলে ছেয়ে গেছে, শুভা পাচ্ছে গ্রাম বাংলার প্রতিটি এলাকায় বাংলার রসালু ফল আম। বাংগালী জাতির ঐতিহ্য পাহাড়ী পল্লীতে আমকে ঘিরে অনেক সময় অনুষ্ঠান ও করে থাকে।

উপজাতীয় নেতা নিউলামং মার্মা বলেন পাহাড়ীরা বিঝু /বৈশবী উৎসবের আগে কেউ আম খায়না। বৈশাবি উৎসবে নারী পুরুষ কাঁচা আম খেতে আনন্দে মেতে উঠে।

সরজমিনে দেখা যায়, উপজেলায় পাহাড়ী এলাকায় বিভিন্ন বসত বাড়ী সহ অনেকের বিভিন্ন জাতের দেশী ও বিদেশী জাতের আম বাগান রয়েছে। প্রচুর পরিমান মুকুল ও আসছে। তবে প্রচুর পরিমান পানি সংকট ও কুয়াশার কারনে মুকুল নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান আম চাষী মোঃ ইউনুচ। বৃষ্টি না থাকলে আমের মুকুল ঝরে যাওয়ার সম্ভাবনার কথা ও তিনি জানান।

চাষী মোঃ সেলিম উদ্দিন জানান, তার বাগানে ছোট বড় মিলে ২০০ শত মতন গাছ রয়েছে। অধিকাংশ আম রাংগুয়াই জাতের। গত বছর সময়মত কিট নাশক ছিটিয়ে অনেক টাকা আয় করা সম্ভব হয়েছে। তবে সরকারী ভাবে কিছুটা সহযোগীতা পেলে আরো ফলন ভাল হবে।

উপসহকারী কৃষি অফিসার রফিকুল আলম জানান, আম চাষীদের বাগানে বাগানে গিয়ে তিনি বিভিন্ন প্রকার ঔষধ ছিটানোর পরামর্শ এবং ফলন যাতে ভাল হয় ও চাষীরা যাতে আগ্রহ না হারায় সেদিকে তদারকি করছেন। পাশা পাশি সার, কিট নাশক সহ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা ও করেছেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.