খাগড়াছড়ি, , বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯

জাতীর পিতার সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন কোন গ্রাম বা মহল্লাকে বাদ দিয়ে সম্ভব নয়

প্রকাশ: ২০১৯-০১-১০ ২২:৩৪:৫২ || আপডেট: ২০১৯-০১-১০ ২২:৩৪:৫৭

গুইমারা প্রতিনিধি: জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন, শান্তির প্রতীক পায়রা, বেলুন উড়িয়ে লক্ষীছড়ির বাইন্যাছোলা মানিকপুর উচ্চ বিদ্যালয় নতুন শিক্ষা কার্যক্রম উদ্ভোধন করেছেন গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম সাজেদুল ইসলাম এএফডব্লিউসি,পিএসসি,জি ।

জাতীর পিতার সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন কোন গ্রাম বা মহল্লাকে বাদ দিয়ে সম্ভব নয়।লক্ষীছড়ির বাইন্যাছোলা মানিকপুর এলাকার কোন উচ্চ বিদ্যালয় না থাকায় ,পাহাড়ী পথে যানবাহনের অভাবে ৮ কিঃ মিঃ পায়ে হেঁটে যেতে হয় বিদ্যালয়ে। দূর্ঘম পাহাড়ে যাতায়াত ব্যবস্থা ও নিরাপত্তার অভাবে এ এলাকার আগ্রহী দরিদ্র মেধাবী ছাত্রছাত্রীরা উচ্চ শিক্ষার স্বপ্ন পূরন থেকে বঞ্চিত হয়ে অকালে ঝড়ে পড়ে যায়।এক্ষেত্রে মেয়েদের সংখ্যাই বেশী। এ অঞ্চলে প্রায় আট হাজার দরিদ্র জনগোষ্টির বসবাস।তাই অবহেলিত এ এলাকার মানুষের জন্য সেনাবাহিনীর গুইমারা রিজিয়নের আওতাধীন লক্ষীছড়ি জোনের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বাইন্যাছোলা মানিকপুর উচ্চ বিদ্যালয়।স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সাধারনরা বলেছেন সেনাবাহিনীর উদ্যোগে এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা হওয়ার মাধ্যমে পিছিয়ে পড়া এ জনপদে শিক্ষার আলো উদ্ভাসিত হবে। আগামী প্রজন্ম পাবে উচ্চ শিক্ষার ছোঁয়া ।

বৃহস্প্রতিবার সকালে লক্ষীছড়ি সেনা জোনের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ মিজানুর রহমানের মিজানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যন্যর মধ্যে লেঃ কর্ণেল ফেরদাউস, লক্ষীছড়ি উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান অংগ্য প্রু মারমা, ফড়িকছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল আলম বাবু, লক্ষীছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ ইকবাল, ফড়িকছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তামুশফিকুর রহমান শিক্ষা অফিসার সরোয়ার ইউচুপ ,ফেরদাুস হোসেন,অফিসার ইনর্চাজ আ: জব্বার ও বাবুল আকতার সহ প্রমুখ কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত লক্ষীছড়ি জোন অধিনায়কের প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার কে সংগে নিয়ে ২৯ অক্টোবর ২০১৮নবর্নিমতি এ বিদ্যালয়টির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চট্রগ্রাম এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল এস এম মতিউর রহমান এএফডব্লিউসি,পিএসসি। ১৯টি গ্রামের ৩৮৭ জন ছাত্রছাত্রী নিয়ে বিদ্যালয়টির যাত্রা শুরু করে। এসময় প্রদান অতিথি ছাত্রঝাত্রীদের হাতে নতুন বই তুলে দেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

পূর্বের সংবাদ

June 2019
M T W T F S S
« May    
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন