খাগড়াছড়ি, , রোববার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

খাগড়াবিল বাজার ব্রিজ; ঝুঁকিতে নয়, মৃত্যুকূপে পরিণত

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-২৪ ১৯:৩৭:০২ || আপডেট: ২০১৮-০৭-২৪ ১৯:৩৭:০২

মোঃ শরিফুল ইসলাম ভূঁইয়া আসাদ, খাগড়াছড়ি: জেলার রামগড় উপজেলাধীন খাগড়াবিল বাজারের ব্রিজটি এখন শুধু ঝুঁকিতে নয় বরং একটি মৃত্যুকুপে পরিণত হয়েছে। পাহাড়ি ঢলে ব্রিজের নিচের অংশের মাটি সরে গিয়ে ব্রিজটির সংযোগে বিশাল একটি গর্ত সৃষ্টি হয়ে ব্রিজের নিচে চলে গেছে।

দীর্ঘ তিন মাস আগে সৃষ্ট হওয়া গর্তটি প্রবল বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে বড় হয়ে গতকাল ২৩ জুলাই সোমবার দিবাগত রাতে ভেঙ্গে যানচলাচল একেবারেই বন্ধ হয়ে গেছে। এলাকাবাসী ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সংশ্লিষ্টদের নিকট বারবার সংস্কারের আবেদন করেও কোনরূপ কাজ না হওয়াতে ক্ষোভ ও দুর্ঘটনার আশংকা করছেন স্থানীয়রা।

জানা গেছে, ২০০৪ সালে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে প্রায় অর্ধকোটি টাকা ব্যয়ে ব্রিজটি নির্মান করা হয়। উপজেলা প্রকৌশল বিভাগের দায়িত্বে থাকলেও ধীরে ধীরে ব্রিজটি ঝুঁকির দিকে গেলেও কোন ধরনের সংস্কার বা গুরুত্ব দেয়া হচ্ছেনা। সম্প্রতি উপজেলা আইন-শৃংখলা সভা ও উপজেলা সমন্বয় সভায় ব্রিজটি দ্রুত মেরামতের জন্য উপজেলা প্রকৌশল বিভাগকে (এডিবি) অনুরোধ করা হয়।

পথচারী খালেক মিয়া জানান, প্রতিদিন কয়েকশ অটোরিক্সা (সিএনজি) এবং ট্রাক, মিনি ট্রাক ও চাঁদের গাড়ি যাত্রী ও মালামাল পরিবহন করে এই ব্রিজের উপর দিয়ে। অথচ র্দীঘ তিন মাসেও সংশ্লিষ্টরা মোটেও গুরুত্ব দিচ্ছেন না ফলে ব্রিজের বিপরিত পাশের লোকজন যেমন কষ্ট করছেন তেমনি অতিরিক্ত টাকা খোয়াচ্ছেন। উপজেলার বানিজ্যিক ও সম্ভাভনাময় এলাকা হওয়া সত্বেও অবহেলিত থাকায় স্থানিয়রা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন।

স্থানীয় ইউপি মেম্বার আবদুল হান্নান জানান, তিনি নিজ উদ্যোগে তিনবার ব্রিজের সংযোগটি মেরামত করেছেন কিন্তু কোন লাভ হয়নি। বৃহৎ আকারে কাজ না হলে এতোবড় ব্রিজ যেমন রক্ষা হবেনা, তেমনি জনদুর্ভোগও কমবেনা।

উপজেলা প্রকৌশলী তন্নয় নাথ জানান, উপজেলা সমন্বয় সভার সিদ্ধান্তের আলোকে এডিবির বরাদ্ধে ইউনিয়ন পরিষদের এলজিএসটি জরুরী প্রকল্পে কাজটি প্রাথমিক ভাবে সম্পন্ন করার জন্য ইউপি চেয়ার‌্যানকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। বরাদ্ধের চাহিদা চেয়ে আবেদন করা হয়েছে পরবর্তীতে এডিবি লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী কাজটি সমপন্ন করবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) এটিএম মোর্শেদ জানান, ব্রিজের সংযোগটির জরুরী মেরামতের জন্য উপজেলা প্রকৌশল বিভাগ ও ইউপি চেয়ার‌্যামনকে নির্দেশানা দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে স্থায়ী মেরামতের ব্যবস্থা করা হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

পূর্বের সংবাদ

February 2019
M T W T F S S
« Jan    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728  

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় প্রথম পাতা

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন