খাগড়াছড়ি, , বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮

খাগড়াছড়িতে বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-০৫ ২০:০১:৫৩ || আপডেট: ২০১৮-০৮-০৫ ২০:৪৪:৩৬

শংকর চৌধুরী: পাহাড় বাসীর ভোগান্তি ও দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান। খাগড়াছড়ির ১৩২-৩৩ কেভি বিদ্যুৎ গ্রিড উপকেন্দ্রের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (০৫ আগস্ট) দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে, পাহাড়ী জনপদ খাগড়াছড়ির জন্য নেওয়া বিভিন্ন উন্নয়ন পরিকল্পনা ও পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ফলে পাহাড়ে পরবর্তী শান্তি প্রতিষ্ঠার কথা তুলে ধরে, গনভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে উপকেন্দ্রটির শুভ উদ্বোধন করেন তিনি।

উদ্বোধন কালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন,পার্বত্য চট্টগ্রামের সমস্যাকে রাজনৈতিক সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করে ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় আসার পর, পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি সম্পাদনের মাধ্যমে পাহাড়ে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। পাহাড়ের মানুষকে উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় যুক্ত করা হয়েছে। তিনি বলেন, বিদ্যুৎ সাবস্টেশন স্থাপনের মাধ্যমে খাগড়াছড়িতে বিদ্যুৎ সুবিধা নিশ্চিত করা হয়েছে। এছাড়াও দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় সোলার প্যানেলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সুবিধা নিশ্চিত করা হবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পার্বত্য চট্টগ্রামের ‘মা’ উল্লেখ করে ভারত প্রত্যাগত শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান (প্রতিমন্ত্রী) কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেন, আপনার সহযোগিতায় খাগড়াছড়িবাসী দীর্ঘদিনের বিদ্যুৎ সমস্যা থেকে মুক্তি পেল। আগে ঝড়-তুফান এলেই এখানকার মানুষ বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশঙ্কায় থাকলেও এখন সে শঙ্কা কেটে গেছে।

খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক মোঃ রাশেদুল ইসলামের সঞ্চালনায় ভিডিও কনফারেন্সে স্থানীয় পামচাষি হাজি মোঃ আলী আকবর ও খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ধনিরাম ত্রিপুরা বক্তব্য রাখেন। এসময়, খাগড়াছড়ির রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল মোতালেব সাজ্জাদ মাহমুদ, পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী ও সকল সদস্য, পুলিশ সুপার মোঃ আলী আহম্মেদ খান, পৌর মেয়র রফিকুল আলম, জেলার সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরাসহজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

২০১৬ সালের শুরুর দিকে জেলা সদরের ঠাকুরছড়া এলাকায় ১৩২/৩৩ কেভি গ্রিড উপকেন্দ্রটির কাজ শুরু হয়। রাঙ্গামাটির কাপ্তাই চন্দ্রঘোনা থেকে দীর্ঘ ৮০ কিলোমিটার সঞ্চালন লাইনটি রাঙ্গামাটি হয়ে খাগড়াছড়ি পর্যন্ত আসে। শহরের অদূরে ঠাকুরছড়া এলাকায় ৬ দশমিক ১০ একর জায়গার ওপর উপকেন্দ্রটি নির্মাণ করা হয়েছে। এতে ব্যয় হয়েছে ৩৯৬ কোটি টাকা। পরে চলতি বছরের ১৩ এপ্রিল থেকে বাণিজ্যিকভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয়।

৮০’র দশকে অনেকটা দায়সারাভাবে চট্টগ্রামের হাটহাজারী থেকে টানানো লাইন দিয়েই চলে আসছিল খাগড়াছড়ির নয় উপজেলা ছাড়াও পাশের জেলা রাঙ্গামাটির নানিয়ারচর, বাঘাইছড়ি ও লংগদু উপজেলার বিদ্যুৎ সরবরাহ। এখন দীর্ঘ ৩৭ বছর বিদ্যুতের চরম ভোগান্তি থেকে মুক্তি পেলো খাগড়াছড়ি ও রাঙ্গামাটির ১২টি উপজেলার মানুষ।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে খাগড়াছড়িতে সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের সঙ্গে গ্রিড উপকেন্দ্রটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

পূর্বের সংবাদ

October 2018
M T W T F S S
« Sep    
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031  

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় প্রথম পাতা

এই সপ্তাহের আলোকিত পাহাড় শেষ পাতা

বিজ্ঞাপন

error: Content is protected !!