খাগড়াছড়ি, , শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

কাপ্তাই উপজেলা আ’লীগ সভাপতির বিরুদ্ধে লিখিত বিস্তর অভিযোগ; প্রতিবাদে সংবাদ সন্মেলন

প্রকাশ: ২০২০-০৯-০২ ১৭:২৮:৪৫ || আপডেট: ২০২০-০৯-০২ ১৭:২৮:৪৭

কাপ্তাই প্রতিনিধি: বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় কাপ্তাই উপজেলা সদরে এক সংবাদ সম্মেলনে কাপ্তাই উপজেলা আ’লীগ সভাপতি লিখিত অভিযোগ উত্থাপন করে বক্তব্যে বলেন -তাঁর জনপ্রিয়তায় ঈর্ষানিত হয়ে কিছু মহল ভুয়া স্বাক্ষরের মাধ্যমে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকের কাছে উড়ো চিঠি পাঠিয়ে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে। 

এই চিঠির অনুলিপি প্রেরণ করা হয় পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি, রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাঙামাটি জেলা হতে নির্বাচিত সাংসদ দীপংকর তালুকদার, রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার কাছে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, তিনি এই চিঠি পাঠ করে জানতে পারেন যে, তাঁর প্রাণপ্রিয় কিছু সহযোদ্ধার নাম ব্যবহার ও স্বাক্ষর জালিয়াতি করে তাঁর সম্মানহানি এবং রাজনৈতিক ভাবে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য আ’লীগ এবং গোয়েন্দা সংস্থার কাছে মিথ্যা ও বানোয়াট কিছু অভিযোগ করা হয়েছে। তিনি একে মিথ্যা ও বানোয়াট দাবি করে এ অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

সংবাদ সম্মেলনে অংসুইছাইন চৌধুরী জানান, তিনি দুই দুইবার জেলা পরিষদের সদস্য এবং কাপ্তাই উপজেলা পরিষদের দায়িত্ব পালন করেছেন। দায়িত্ব পালনে তিনি কখনও অন্যায় এবং দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেননি।

তিনি আরো জানান, তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রীর ব্যাংক লোনের মাধ্যমে শীলছড়িতে জায়গা ক্রয় করা হয়েছে। অথচ এই কুচক্রি মহল ভুয়া অভিযোগ করেছেন তিনি নাকি জোর করে এই জায়গা দখল করেছেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিএনপি কিংবা প্রতিপক্ষ কোনো রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের সাথে তাঁর কোন সখ্যতা নেই। তিনি জানান, উড়োচিঠির সাথে সংযুক্ত বিএনপি নেতা ডা: রহমতউল্লার নাম প্রকাশ করা হয়েছে। অথচ ছবিতে যেই ছবিটি সংযুক্ত করা হয়েছে তিনি কাপ্তাই উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার মোঃ ইস্রাফিল হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ডেপুটি কমান্ডার ইস্রাফিল হোসেন জানান, উড়োচিঠিতে উপজেলা আ’লীগ সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরীর সাথে তাঁর ছবি সংযুক্ত আছে অথচ তাঁর পিতাকে রাজাকার বলা হয়েছে। আমি একজন বঙ্গবন্ধুর সৈনিক এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত জেএসএস এর সাবেক যুগ্ন সম্পাদক ইউপি সদস্য সুইপ্রু মারমা জানান, তাঁকে জেএসএস এর গোয়েন্দা শাখার প্রধান বলে অপপ্রচার করা হচ্ছে এবং তাঁর সাথে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির সখ্যতার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। সুইপ্রু মারমা জানান, তিনি ২০১৯ সালে জেএসএস হতে পদত্যাগ করেন এবং জেএসএস এর সাথে বর্তমানে তার সর্ম্পক নেই।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক অজয় সেন, সাবেক ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক হানিফ বাবুল, মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী মনোয়ারা জাহান এবং সদস্য সুইনুচিং  মারমা উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, তাঁদের স্বাক্ষর জাল করে এই অভিযোগ করা হয়েছে। তাঁরা এই বিষয়ের সাথে কোনভাবে সম্পৃক্ত নয়। তাঁরা প্রত্যেকেই এই বিষয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং দোষীদের শাস্তির দাবি জানান।

তাঁরা প্রত্যেকে জানান, কাপ্তাই উপজেলা   আওয়ামী-লীগ সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরীর বিরুদ্ধে  লিখিত অভিযোগ  বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত।  

সংবাদ সম্মেলনে গন মাধ্যম কর্মীদে উদ্দেশ্যে   অংসুইছাইন চৌধুরী  বলেন দুর্নীতির অভিযোগে বহিষ্কৃত আওয়ামী লীগ থেকে কিছু নেতাকর্মী তাঁর বিরুদ্ধে এই ভুয়া, মিথ্যা, বানোয়াট অভিযোগ করতে পারেন।

তিনি আরো জানান, কাপ্তাইয়ের  এই সংবাদ সম্মেলনের কপি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সভাপতি / সম্পাদক, পার্বত্য মন্ত্রী, রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি / সম্পাদক এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার দপ্তরে প্রেরণ করবেন।

সংবাদ সম্মেলনে কাপ্তাই উপজেলা আ’লীগ এর সাবেক সহ সভাপতি, ৪নং কাপ্তাই ইউপি চেয়্যারম্যান প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ, সাবেক সহ সভাপতি ১নং চন্দ্রঘোনা ইউপি চেয়্যারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবী, উপজেলা আ’লীগের সাবেক যুগ্ন সম্পাদক স্বপন বড়ুয়াসহ আওয়ামী লীগর স্থানীয় নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.