খাগড়াছড়ি, , শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

কাপ্তাই উপজেলার ওয়াগ্গা মুরং ঝর্ণা পর্যটকদের হাতছানি দিয়ে ডাকছে

প্রকাশ: ২০২০-০৯-০৩ ১৩:১১:৫৯ || আপডেট: ২০২০-০৯-০৩ ১৩:১২:০০

মাহফুজ আলম, কাপ্তাই: কাপ্তাই উপজেলার ওয়াগ্গা মুরং ঝর্ণা ও ঝিরি গুলোতে-ছুটে-চলেন-পর্যটকওপ্রকৃতিপ্রেমীরা- এখন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে কাপ্তাইয়ের ‘ফুকির মুরং’ ঝর্ণাটি। কিছুটা দুর্গম ও পাহাড়ি এলাকায় হওয়ায় এখনো ঝর্ণাটির সঙ্গে বেশ পরিচিতি হয়ে উঠেনি ভ্রমণপিপাসুরা। তবে সাম্প্রতিক সময়ে কিছু পর্যটক  ছুটে চলছেন এ ঝর্ণায়।আর মনের আনন্দে উপভোগ করছেন   পার্বত্য কাপ্তাইয়ে ঝিরি-ঝর্না।   

পার্বত্য রাঙ্গামাটির কাপ্তাই উপজেলার ওয়াগ্গা ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ড পাগলি পাড়া‘ফুকির মুরং’ ঝর্ণায় যেতে চট্র্রগ্রাম হতে কাপ্তাই উপজেলা সদর হতে    ঘাগড়া-বড়ইছড়ি সড়কের বটতলি এলাকার পূর্ব পাশ ধরে চার কিলোমিটার পাহাড়ি পথ পার হতে হবে। এ পথেই যেতে দেখা মিলবে পাগলিমুখ পাড়া, পাগলি মধ্যমপাড়া, সবশেষে পাগলি উপর পাড়ায় এ ঝর্ণার দেখা মিলবে। 

ওই এলাকায় যেতে যেতে ভ্রমণপ্রেমীরা উপভোগ করতে পারবেন পাহাড়ি ঝিরিতে বয়ে চলা শীতল পানির বহমান ধারা, আশপাশে পাহাড়ি গ্রামের- অপরুপ দৃশ্যপট, বনের মাঝে বানরও পাখির কোলাহল।  

সম্প্রতি ফুকির মুরং ঝর্ণায় ভ্রমণ দল নিয়ে ঘুরে এসেছেন স্থানীয় পর্যটক  রিনা, রুভেল, খোকন, আকলিমা, তয়না চাকমা সহ- আরো অনেকে। তারা বলেন, আমরা রাঙ্গামাটির অনেক জায়গায় বেড়াতে পেরেও এতদিন এ ঝর্ণাটির খোঁজ পাইনি। সম্প্রতি বিভিন্নভাবে জানতে পেরে ঝর্ণাটিতে ঘুরে এলাম। ঝর্ণাটি অপরুপ সুন্দর যা বলার অপেক্ষা রাখে না। ঝর্ণাটির পাহাড়ের মাটির ভাঁজ এমন হয়েছে; দূর থেকে দেখতে একদম প্রকৃতির লীলাভুমির-আর্ট। তবে এলাকাটি বেশ দুর্গম হলেও তবে প্রকৃতির-ঝর্ণাকে উপভোগ করার পর প্রশান্তির ছোঁয়া লেগে স্বস্তি অনুভব হয় পুরোদমে।     

কাপ্তাই উপজেলার ওয়াগ্গা ইউপি চেয়ারম্যান চিরণজিৎ তঞ্চঙ্গ্যা বলেন, আমার ইউপিতে এ ঝর্ণাটি অনেক পুরনো। এতদিন এখানে মানুষের আনাগোনা ছিল না। তবে এ বছর রাঙ্গামাটির বিভিন্ন এলাকার মানুষজন ঘুরতে আসছেন। ঝর্ণাটি প্রত্যন্ত গ্রামে হওয়ায় যোগাযোগ-ব্যবস্থারআরো উন্নয়ন করা প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন। 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.